বাংলাদেশ পুলিশের চার তরুণ অফিসার ‘এভিয়েশন বেসিক কোর্স-১২’ সাফল্যের সাথে সম্পন্ন করেছেন। তারা হলেন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ সারোয়ার হোসাইন, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ মুশফিকুল হক, সহকারী পুলিশ সুপার ফাতেমা-তুজ-জোহরা ও সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আবুল হোসাইন।সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ, এসবিপি, ওএসপি, এনডিইউ, পিএসসি, পিএইচডি প্রধান অতিথি হিসেবে আজ দুপুরে আর্মি এভিয়েশন স্কুলে নবীন বৈমানিকদের সার্টিফিকেট প্রদান করেন ও তাদের ফ্লাইং ব্রেভেট পরিয়ে দেন। ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ, বাংলাদেশ চৌধুরী আবদুল্লাহ আল-মামুন বিপিএম (বার), পিপিএম এবং উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।আর্মি এভিয়েশন গ্রুপের অধীনস্থ এভিয়েশন স্কুলের সার্বিক তত্ত্বাবধানে সেনা বাহিনী, নৌ বাহিনী এবং বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর মোট ১০ জন তরুণ অফিসার ‘এভিয়েশন বেসিক কোর্স-১২’ সম্পন্ন করেছেন। প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে সেনাবাহিনীর পাঁচ জন সেসনা-১৫২ এ্যারোবেট বিমানে ৭০ ঘন্টা এবং নৌ ও বাংলাদেশ পুলিশের পাঁচ জন ডায়মন্ড ডিএ-৪০এনজি বিমানে ৭০ ঘন্টা উড্ডয়ন সফলভাবে সম্পন্ন করেন। সেসনা-১৫২ এ্যারোবেট বিমানের প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে শ্রেষ্ঠ বৈমানিক নির্বাচিত হয়েছেন ক্যাপ্টেন মোঃ আবু তালহা আরেফিন, এএসসি এবং ডায়মন্ড ডিএ-৪০এনজি বিমানে শ্রেষ্ঠ বৈমানিক নির্বাচিত হয়েছেন সিনিয়র সরকারি পুলিশ সুপার মো. সারোয়ার হোসাইন। এছাড়াও এএসপি সারোয়ার উক্ত প্রশিক্ষণে সম্মিলিত ফলাফলেও প্রথমস্থান অর্জন করে যা অত্যান্ত গৌরবের।উল্লেখ্য, সহকারী পুলিশ সুপার ফাতেমা-তুজ-জোহরা বাংলাদেশ পুলিশের প্রথম নারী বৈমানিক হওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন।